২৪ ঘণ্টা কাজ করছি, পছন্দ না হলে মুণ্ড কেটে নিন: মমতা

সুপার সাইক্লোন আম্পানের প্রভাবে লন্ডভন্ড পুরো কলকাতা। এরই মধ্যে বিদ্যুৎ নিয়ে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। সেই প্রসঙ্গেই শনিবার (২৪ মে) সরকারি বাসভবন নবান্নে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, আমরা সাধ্যমতো কাজ করছি। আমি ও আমার টিম কেউ তিনদিন ঘুমাইনি। ২৪ ঘণ্টা ধরে কাজ করছি। সব দলকে বলব, কিছুদিনের জন্য ক্ষান্ত হন। কাজ করতে দিন। পছন্দ না হলে আমাকে গুলি করুন। না হলে আমার মুণ্ড কেটে নিন।’
বিরোধী দলের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এখন ক্ষুদ্র রাজনীতির সময় নয়। সাম্প্রদায়িকতায় এখন সুড়সুড়ি দেবেন না।

২০০৯ সালের আয়লার প্রসঙ্গও টেনে এনে তিনি বলেন, দুর্যোগ যখন আসে সহ্য করতে হয়। ধৈর্য ধরতে হয়। আয়লার সময় আমি কিন্তু সমালোচনা করিনি।

এদিকে মমতার এই মনোভাবের সমালোচনায় সরব হয়েছে বিজেপি, সিপিএম ও কংগ্রেস। সকলেরই মূল বক্তব্য, দুর্যোগ পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার ব্যর্থ। কারণ, প্রস্তুতি বা পরিকল্পনা কোনোটাই সুষ্ঠু ছিল না। তাই বিরোধীরা মনে করেন, ঘাটতি ঢাকার জন্য মুখ্যমন্ত্রী এখন ‘আক্রমণাত্মক’ পথে গিয়ে আত্মরক্ষার চেষ্টা করছেন।
কীভাবে এই বিপর্যয়ের মোকাবিলা করা হচ্ছে, তার ব্যাখ্যা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, আম্পান আসার আগে অন্তত তিন লাখ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে আসা হয়েছে। না হলে প্রাণহানি আরও বাড়ত।

তার দাবি, গত কয়েক দিন ধরে সবাই দিন-রাত কাজ করছি। যারা রাস্তা পরিষ্কার বা অন্য কাজে যুক্ত তারাও ২৪ ঘণ্টা কাজ করে চলেছেন। আমাদের এক হাজার টিম কাজ করছে। তারাও তো মানুষ। পাড়ার ছেলেরা পর্যন্ত নেমে পড়েছে। পুলিশ লকডাউন সামলাবে, না সাইক্লোন সামলাবে? এই চাপও সকলের মনে রাখতে হবে। জেলায় মানুষ আরও কষ্টের মধ্যে রয়েছেন।
সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

Sharing is caring!