মসজিদে ইমামের সংস্পর্শে ৬ জন করোনায় আক্রান্ত

মসজিদে নামাজ আদায় করতে গিয়ে এবার ইমামের সংস্পর্শে আসা ৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এমন ঘটনা ঘটেছে মাদারীপুরের রাজৈরের ইশিবপুর ইউনিয়নে। নতুন আক্রান্ত ৭ জনই পুরুষ।

শুক্রবার (০৮ মে) সন্ধ্যায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রদীপ চন্দ্র মণ্ডল।
রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা প্রদীপ চন্দ্র মন্ডল জানান, গত ৩ মে রাজৈর উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের একটি মসজিদের ২৬ বয়সী এক ইমাম জ্বর, ঠান্ডা ও গলা ব্যথা নিয়ে নিজ বাড়ি ফরিদপুরে যান। যাওয়ার পথে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি করোনা টেস্টের নমুনা দেন। একদিন পরে আসা প্রতিবেদনে ওই ইমাম করোনায় শনাক্ত হয়।

এরপরেই রাজৈর উপজেলায় তার কর্মস্থল মসজিদের আশেপাশে থাকা অন্তত ৫০টি বাড়ি বিশেষায়িত লকডাউন ঘোষণা করে প্রশাসন। পরে ওই ইমামের সংস্পর্শে আসা ৪৭ জনকে চিহ্নিত করে স্বাস্থ্য বিভাগ। পরে তাদের বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হয়। ৪৭ জনের মধ্যে গত ৫ মে ২৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। এর মধ্যে ৬ জনের পজিটিভ ও ২৩ জনের নেগেটিভ প্রতিবেদন আসে।
স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, এখন পর্যন্ত ৮৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হলেও ৭৪৯ জনের প্রতিবেদন পাওয়া গেছে। এরমধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ১০৩টি নমুনা প্রেরণ করা হয়েছে। আর ২৪ ঘণ্টায় ৯৪ জনের প্রতিবেদন হাতে আসলে ৭ জনের পজিটিভ ও ৮৭ জনের নেগেটিভ রিপোর্ট পায় জেলার স্বাস্থ্য বিভাগ।
জেলায় বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ২১ জন। এছাড়াও সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৫ জন। আর মারা গেছেন ২জন।

রাজৈর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শওকত জামান জানান, করোনায় আক্রান্ত ইমামের সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তিদের খোঁজ করতে গত বুধবার ২৫নং লুন্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শাহাজাদা পারভেজকে ওই এলাকায় পাঠানো হয়। এ সময় এলাকাবাসী ওই শিক্ষকের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ ঘটনায় আহত শিক্ষক বৃহস্পতিবার থানায় মামলা দায়ের করেন। আসামিদের মধ্যে দু’জন রয়েছেন তারা বাবা ও ছেলে। মামলার পরে বাবা-ছেলে পলাতক হলেও পুলিশ তাদের বুঝিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করে।
মাদারীপুরের সিভিল সার্জন ডা. শফিকুল ইসলাম বলেন, মাদারীপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে ৭জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৮ জনে। আক্রান্তের মধ্যে শিবচরে ২৩ জন, সদর উপজেলায় ১০ জন, রাজৈরে রয়েছে ১৪ জন ও কালকিনিতে একজন।

Sharing is caring!