৬১ লাখ টাকা ফেরত দিয়ে চাকরি পাচ্ছেন চাঁদপুরের অটো চালক সজীব

চাঁদপুরে হারানো ৬১ লাখ টাকা ফেরত পেয়ে অটোচালক সজিবকে চাকরি, টাকা অথবা অটোরিকশা পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন বিকাশ এজেন্ট আলমগীর হোসেন জুয়েল। সোমবার এ তথ্য জানান তিনি। তিনি বলেন, তার চাহিদা মোতাবেক তাকে পুরস্কার দেয়া হবে।

বিকাশের এজেন্ট আলমগীর হোসেন জুয়েল বলেন, আমি বিশাল ক্ষতির থেকে রক্ষা পেয়েছি। পুলিশ, অটোচালকসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

তিনি বলেন, অটোচালককে নিয়ে আমি বসব। সে যদি চাকরি চায় তাহলে তাকে আমার এখানে চাকরি দেব। আর যদি সে টাকা অথবা অটোরিক্সা চায় তাহলে তাকে পুলিশের মাধ্যমে একটি অটোরিকশা দেব।

এদিকে অটোচালক সজিবের পাশাপাশি জেলা আওয়ামী লীগের অফিস সহকারী বাদল গাজীর প্রশংসা বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ।

অনেকেই বলছেন, বাংলা চলচ্চিত্রে অন্যতম একটি চরিত্র পার্শ্ব নায়ক বাদল। চাঁদপুরে বিকাশ এজেন্টের ৬১ লাখ টাকা উদ্ধারের ঘটনায় এক পার্শ নায়কের ভূমিকা পালন করেন বাদল। সে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের অফিস সহকারী। বিকাশ এজেন্টের এতোগুলো টাকা ফিরে পাবার অন্যতম ভূমিকা ছিল তার।

অটোচালক সজীব যদি টাকার ব্যাগ নিয়ে ভুল মানুষের কাছে যেতো, তবে ঘটনা অন্যরকম হতে পারতো। অটোচালক সজীবের দৃষ্টান্তমূলক উদারতায় মূলত বাদলই পুলিশকে ফোন করে টাকা পাবার বিষয়টি অবগত করে।

এই ঘটনাটি স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়ার পর সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অটোচালক সজীবকে নিয়ে প্রশংসার ঝড় উঠে। ওইদিন রাতেই চাঁদপুরের পুলিশ সুপার মাহাবুবুর রহমান এই সততার জন্যে তাৎক্ষণিক অটোচালক সজীববে ৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেন। সোমবার চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকেও সজীবকে খাদ্যসহায়তা এবং ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সম্পাদক অটোচালক সজীবসহ জেলা আওয়ামী লীগের অফিস সহকারী বাদলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

Sharing is caring!