শয়তান তাড়াতে শিশুর শরীরের ওপর দৌঁড়ায় বৃদ্ধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পৃথিবীতে অনেক রীতি-নীতি ও নিয়ম কানুন দেখা যায়, তার মধ্যে এমন নিয়ম এভাবে মানুষের শরীর থেকে শয়তান তারানো হয়। তাও আবার বাচ্চাদের মাটিতে সোয়াইয়ে তাদের উপর দিয়ে ডেঙ্গিয়ে যাওয়া। পৃথিবীতে অনেক জাতি-উপজাতি রয়েছে। আর তাদের রীতি, সংস্কৃতির সঙ্গে ভিন্নতা রয়েছে উৎসবেও। যেমন- উত্তর স্পেনের কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরে পালিত হয় এক অদ্ভূত উৎসব। শিশুদের উপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব তাড়ানোর জন্য সেখানকার বাসিন্দারা একটি উৎসব পালন করে।

এই উৎসবের নাম হলো সাল্টো ডেল কোলাচো বা এল কোলাচো। স্প্যানিশ থেকে বাংলা করলে এর অর্থ দাঁড়ায়- শয়তানের লাফ। প্রতি বছর জুন মাসে মহা সমারোহে কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরে এই উৎসব পালিত হয়। শহরের সনাতন রীতির অনুসারীরা মনে করে, এর মাধ্যমে তাদের নবজাতক সন্তানের ওপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব দূর হয়। স্পেনে ১৬২০ সাল থেকেই এই উৎসব পালিত হয়ে আসছে। এই উৎসবের বয়স প্রায় ৪০০ বছর। উৎসবটি প্রতিবছর জুনের ২৩ তারিখ হয়ে থাকে।
উৎসবের দিন প্রত্যেক নবজাতকের মা-বাবা তার শিশুকে রাস্তার উপরের সাদা বিছানায় শুইয়ে রাখেন। ওই বিছানায় ছড়ানো থাকে গোলাপের পাপড়ি। সদ্য জন্মানো থেকে শুরু করে এক বছর বয়সী শিশুদেরকে রাস্তায় রেখে দেয়া হয়। এরপর তাদের শরীর থেকে শয়তানের প্রভাব কাটানোর জন্য থাকেন এক পাদ্রী। তিনি উৎসব চলাকালীন সময়ে শিশুদের শরীরের ওপর দিয়ে দৌঁড়াতে থাকেন।

পাদ্রীর সাজ পোশাক থাকে শয়তানের মতো। তাকে লাল এবং হলুদ রঙের পোশাক পরতে হয়। তার মুখে থাকে শয়তানের মুখোশ। তার এক হাতে থাকে একটি চাবুক এবং অন্য হাতে ক্যাসটেন্টোস (এক ধরনের স্প্যানিশ বাদ্যযন্ত্র)। যখন লাল এবং হলুদ রঙের মুখোশ ও পোশাক পরিহিত লোক শিশুদের ওপর দিয়ে লাফিয়ে পার হয় তখন চারপাশে গোল হয়ে দাঁড়িয়ে থাকে শিশুর মা-বাবা। তারা ভয় পাওয়ার বদলে উৎসবে মেতে ওঠে, আনন্দ করে।
স্থানীয় স্যানটিসিমো স্যাকরামেন্টো ডি মিনারোভার পাদ্রীরা উৎসবের আয়োজন করেন। ঐতিহ্যগতভাবে উৎসবটি কেবল স্থানীয় গ্রামের বাচ্চাদের মধ্যে করা হয়। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এই উৎসবে অংশ নিতে উত্তর স্পেনে ভ্রমণ করছে। এই উৎসবে আজো অবধি কোনো শিশুর মৃত্যু অথবা আঘাত পাওয়ার খবর মেলেনি।

Sharing is caring!