বিজ্ঞানী নন, প্রতারক ড. বিজন!

ফাঁস হয়ে গেল স্বঘোষিত নামী দামী বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীলের ধাপ্পাবাজি। সহজ ও স্বল্পমূল্যে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) পরীক্ষার কিট উদ্ভাবনের দাবি করে কয়েক মাস আগে আলোচনায় আসেন ড. বিজন কুমার শীল। তিনি দাবি করেছিলেন, সিঙ্গাপুর গবেষণাগারে কয়েকজন সহকারীকে নিয়ে সার্স ভাইরাস দ্রুত নির্ণয়ের পদ্ধতিও তারই আবিষ্কার করা। ডেঙ্গু নিয়েই তার গবেষণার কথা জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু এবার বেরিয়ে এলো, ড. বিজন যতটা না বিজ্ঞানী, তার চেয়ে বড় প্রতারক তিনি।

ড. বিজন যেটাকে নিওজের আবিষ্কৃত করোনা পরীক্ষার টেস্ট কিট বলে দাবি করেছেন, সেটা আসলে বহু আগে ভারত এবং চীনের তৈরি একটি কিট। তাদের পদ্ধতি চুরি করে ড. বিজন সেটা নতুন করে বানিয়েছেন, কিন্তু আবিষ্কার বলতে যা বোঝায় সেটা তিনি করেননি।

ড. বিজনের প্রতারণার কেচ্ছা আছে আরও। টেস্ট কিট তৈরির জন্য রেড ডট নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সহযোগী কোম্পানি আই টেক সলিউশনের হয়ে গবেষণা করার কাজ পেয়েছিলেন তিনি। এজন্য আই টেক সলিউশন তাকে ৯ মাস যাবত ২ হাজার মার্কিন ডলার করে পরিষোধও করেছিল। কিন্তু ড. বিজন সেখানে দৃশ্যমান বা ফলপ্রসূ কোনো কাজই করেননি। এজন্য প্রতিষ্ঠানটি তাকে সেই অর্থ দেওয়া বন্ধ করে দেয়।

একজন বিজ্ঞানী সবসময় মানবকল্যাণের জন্য কাজ করবেন, এটাই কামনা করে সবাই। কিন্তু তিনি মিথ্যাচার বা প্রতারণা করে মানুষের সরল বিশ্বাসকে নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য ব্যবহার করবেন এটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এটা শাস্তিযোগ্য অপরাধও বটে।

Sharing is caring!