জেনে নিন গত ২৪ ঘন্টার জেলাভিত্তিক করোনা আপডেট

চাঁদপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। যশোরে নতুন শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ১১ এবং ঝিনাইদহে আরও আট জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ ছাড়াও, করোনা উপসর্গ নিয়ে পটুয়াখালীতে এক বৃদ্ধ ও পাবনার এক ব্যাংক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। দ্য ডেইলি স্টারের স্থানীয় সংবাদাদাতারা এসব তথ্য জানিয়েছেন।

চাঁদপুরে আরও ৫২ জনের করোনা শনাক্ত

চাঁদপুরে নতুন করে আরও ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে চাঁদপুরে জেলায় ৪৬৪ জনের করোনা শনাক্ত হলো।

আজ সোমবার দুপুরে চাঁদপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্লাহ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘সোমবার ৯১ জনের প্রতিবেদন এসেছে। এরমধ্যে ৫২ জনের পজিটিভ এবং বাকি ৩৯ জনের নেগেটিভ।’

নতুন আক্রান্ত ৫২ জনের মধ্যে চাঁদপুর সদরে পাঁচ জন, হাইমচরে আট জন, হাজীগঞ্জে নয় জন, শাহরাস্তিতে ১৫ জন, ফরিদগঞ্জে পাঁচ জন, মতলব দক্ষিণে চার জন ও মতলব উত্তর উপজেলায় ছয় জন। উপজেলাভিত্তিক আক্রান্তের সংখ্যায় চাঁদপুর সদরে ১৬২ জন, মতলব উত্তরে ২৫ জন, ফরিদগঞ্জ ৫৫ জন, হাইমচরে ৩২ জন, হাজীগঞ্জ ৫৮ জন, কচুয়ায় ২৮ জন, শাহরাস্তি ৬২ জন, মতলব দক্ষিণে ৪২ জন।

যশোরে ২৪ ঘন্টায় ১১ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টার পরীক্ষায় ১১টি নমুনা পজিটিভ হয়েছে। ১৫০টি নমুনা পরীক্ষা করে সোমবার সকালে এই ফল প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠানটি।

আজ যে ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে তার দশ জনই যশোরের। আরেকজন মাগুরা জেলার বাসিন্দা। এদিন যশোরের ১৩১টি এবং মাগুরার ১৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। তবে, মাগুরার ওই রোগীও যশোর জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন আছেন।

যবিপ্রবির ডা. তানভীর ইসলাম জানিয়েছেন, ‘পরীক্ষার ফলাফল সংশ্লিষ্ট সিভিল সার্জনদের দপ্তরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

আজ শনাক্ত ব্যক্তিরা সবাই নতুন নাকি এর মধ্যে ফলোআপ আছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি যশোরের সিভিল সার্জনের দপ্তর থেকে।

তবে সিভিল সার্জন দপ্তরের তথ্য মতে, আজ ফলাফল পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে যশোর সদরের (মাগুরার রোগীসহ) ছয়জন আছেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন যশোর জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি কনসালট্যান্ট ডা. আব্দুর রহিম মোড়ল। এ ছাড়াও, একই হাসপাতালের একজন ইসিজি টেকনিশিয়ানও আছেন।

যশোর জেলায় সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জরুরি সভা থেকে জানান আক্রান্তদের মধ্যে এক জনের মৃত্যু এবং শতাধিক রোগী সুস্থ হয়েছেন।

ঝিনাইদহে পুলিশ ও ব্যাংক কর্মকর্তাসহ নতুন ৮ জনের করোনা শনাক্ত

ঝিনাইদহ জেলায় এক পুলিশ সদস্য ও দুই ব্যাংক কর্মকর্তাসহ নতুন করে আরও ৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আজ সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম।

জানা গেছে, করোনায় আক্রান্ত ব্যাংক কর্মকর্তারা শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক কালীগঞ্জ শাখায় কর্মরত এবং চুয়াডাঙ্গা জেলায় কর্মরত এক পুলিশ সদস্য। ওই পুলিশ সদস্যের গ্রামের বাড়ি কালীগঞ্জ উপজেলায় এবং তিনি করোনা পরীক্ষার জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নমুনা দিয়েছিলেন।

ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম জানান, ঝিনাইদহে সোমবার নতুন ৩২টি নমুনার রিপোর্ট এসেছে। যার মধ্যে আটটি নমুনার রিপোর্ট পজিটিভ বাকি ২৪ টি নেগেটিভ। আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার ২ জন, কালীগঞ্জের ৪, হরিণাকুন্ডের ১ ও মহেশপুরের ১ জন আছেন।

এ নিয়ে জেলায় মোট ১ হাজার ৩২০ টি নমুনার রিপোর্টে ১০১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪৩ জন।

পটুয়াখালীর বাউফলে করোনা উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে পটুয়াখালীর বাউফলে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। রোববার রাতে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আখতারুজ্জামান জানান, জ্বর, কাশি ও শ্বাস কষ্ট নিয়ে ওই ব্যক্তি গতকাল সকাল নয়টার দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। বিকেলে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। একপর্যায়ে সন্ধ্যা সাতটার দিকে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি মারা যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাকির হোসেন জানান, করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তিকে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে দাফন করা হয়েছে। তার সান্নিধ্যে থাকা স্বজনদের বাড়িতে কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পাবনায় করোনা উপসর্গ নিয়ে ব্যাংক র্কমর্কতার মৃত্যু

করোনা উপসর্গ নিয়ে পাবনা জেনারলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাতে এক ব্যাংক কর্মকর্তা মারা গেছেন।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালরে চিকিৎসক ডা. সালহে মুহাম্মাদ আলী জানান, গতকাল সকালে করোনা উপর্সগ নিয়ে রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের ওই কর্মকর্তা পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন। ওই দিন রাতেই মারা যান তিনি। মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় পাবনা জেলা যুবলীগের এক কর্মীসহ ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে পাবনা জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত হলো ২০১ জন। পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মেহেদী ইকবাল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় পাবনা জেলার ৯০টি নমুনা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৭৯ টি নেগেটিভ এবং ১১ জনের পজিটিভ শনাক্ত হয়। নতুন শনাক্তের মধ্যে ১০ জন পাবনা সদরের এবং এক জন চাটমোহর উপজেলার।

Sharing is caring!