করোনা ভাইরাস: বাংলাদেশে প্রথম কোনো মন্ত্রী কোভিড-১৯ এ মারা গেছেন

শনিবার রাতে মারা যাওয়া ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ করোনাভাইরাস পজিটিভ ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার সহকারী একান্ত সচিব শেখ নাজমুল হক সৈকত।

তিনি জানান, “গতকাল (শনিবার) রাতে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আজ সকালে জানা যায় যে তিনি করোনাভাইরাস পজিটিভ ছিলেন।”

“প্রতিমাসে দুইবার করে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হতো। গত কয়েকমাস করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়নি।”

শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহর একান্ত সচিব ইয়াসির আরেফিন জানান, “তার ডায়বেটিস ছিল এবং মাঝেমধ্যে শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত সমস্যাও হতো। বার্ধক্যজনিত সব ধরণের রোগেরই উপসর্গ ছিল তার মধ্যে।”

তবে এই দুই কর্মকর্তাই জানান তার মধ্যে কোভিড-১৯ এর কোনো উপসর্গ দেখা যায়নি।

শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকার সংসদীয় প্রতিনিধি ছিলেন। ২০১৯ এর জানুয়ারি মাসে তিনি ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পান।

বাংলাদেশের মন্ত্রীসভার কোনো সদস্যের করোনাভাইরাসে মৃত্যু হওয়ার ঘটনা এই প্রথম।

এর আগে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোজাম্মেল হক কোভিড-১৯ আক্রান্ত হন।

শনিবার (১৩ই মে) মারা যাওয়া আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা, সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশের সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের মৃত্যুর কয়েকদিন আগে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসলেও মারা যাওয়ার সপ্তাহ দুয়েক আগে তিনি করোনাভাইরাস পজিটিভ ছিলেন।

Sharing is caring!