ইমরান খানের সাহায্যের প্রস্তাবে যা বলল ভারত

মহামারী করোনা পরিস্থিতিতে ভারতের দরিদ্রদের অ্যাকাউন্টে নগদ টাকা পাঠিয়ে সাহায্যের যে প্রস্তাব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দিয়েছিলেন, তা প্রত্যাখ্যান করেছে ভারত।

দেশটি বলছে, করোনা মহামারীর আকার নেয়ার পর ভারত সরকার যে অর্থনৈতিক ত্রাণ প্যাকেজের ঘোষণা করেছে তা পাকিস্তানের জিডিপির সমান। খবর এনডিটিভির।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, পাকিস্তান তাদের নিজেদের দেশের জনগণের অ্যাকাউন্টে নগদ দেয়ার চেয়ে দেশের বাইরের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে নগদ টাকা স্থানান্তরের জন্যে পরিচিত। ইমরান খানের উপদেষ্টাদের এ বিষয়ে আরও জানতে হবে।

তিনি বলেন, পাকিস্তানের ঋণ সমস্যা (জিডিপির ৯০ শতাংশ) এবং ঋণ পুনর্গঠনের জন্য তারা কতটা চাপের মধ্যে রয়েছে, সে সম্পর্কে আমরা সবাই জানি। এটা ওদের জেনে রাখা উচিত হবে যে আমাদের অর্থনৈতিক উদ্দীপনা প্যাকেজ পাকিস্তানের জিডিপির সমান।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের মহামারী মোকাবেলায় দেয়া লকডাউন পরিস্থিতির কারণে অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলার জন্য হিমশিম খাচ্ছে ভারত।

মুম্বাইভিত্তিক ‘সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমি’ এক জরিপে জানিয়েছে, মার্চ মাসে আরোপ করা লকডাউনের কারণে শতকরা ৮৪টি পরিবারের আয় কমে গেছে।

ওই জরিপে অংশ নেয়া প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন জানিয়েছেন যে, তাদের কাছে যে সম্পদ আছে তা এক সপ্তাহের মধ্যে ফুরিয়ে যাবে।

এ পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান টুইটারে দেয়া এক পোস্টে বলেছেন, ‘আমি অর্থ সহায়তার প্রস্তাব দিতে প্রস্তুত রয়েছি এবং আমরা যে সফলভাবে স্বচ্ছতার সঙ্গে নগদ অর্থ প্রদানের কর্মসূচি হাতে নিয়েছিলাম যা আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হয়েছে তাও ভারতের সঙ্গে শেয়ার করতে প্রস্তুত রয়েছে।’

Sharing is caring!